শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ৩:৩৬ pm

‘লং কোভিড’ বুঝতে আরও গবেষণার প্রয়োজন

‘লং কোভিড’ বুঝতে আরও গবেষণার প্রয়োজন

প্রতিবেদনের প্রধান লেখক ফাহাদ রাজাক

তথাকথিত ‘লং কোভিড’ অবস্থা ও স্বাস্থ্য সেবা খাতের ওপর এর সম্ভাব্য বোঝা সম্পর্কে ভালো ধারণা পেতে আরও গবেষণার প্রয়োজন বলে জানিয়েছে অন্টারিও কোভিড-১৯ সায়েন্স অ্যাডভাইজরি টেবিল। গত বুধবার এ তথ্য জানায় তারা।

 

অ্যাডভাইজরি টেবিলের মতে, কোভিড আক্রান্ত ১০ শতাংশ মানুষের মধ্যে সেরে ওঠার পরও এর উপসর্গ থাকতে পারে এবং কয়েক সপ্তাহ থেকে কয়েক মাস পর্যন্ত তা স্থায়ী হতে পারে। এ সংক্রান্ত প্রতিবেদনের প্রধান লেখক ফাহাদ রাজাক বলেন, শুধু জনগণের মধ্যে নয়, চিকিৎসকদের মধ্যেও ‘লং কোভিড’ নিয়ে বোঝাপাড়া কম। কারণ, এ সংক্রান্ত পর্যাপ্ত তথ্য না থাকায় এটা সংজ্ঞায়িত করা বেশ কঠিন। রক্ষণশীলভাবে দেখলে কানাডায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত দেড় লাখ মানুষের মধ্যে লং কোভিডের উপসর্গ দেখা গেছে। অন্টারিওতে সংখ্যাটি ৫৭ হাজার থেকে ৭৮ হাজারের মধ্যে হবে।

 

লং কোভিডের ২০০ এর বেশি উপসর্গের মধ্যে সাধারণ কিছু উপসর্গ হলো অবসন্নতা, শ^াসকষ্ট, সাধারণ ব্যথা ও অস্বস্তি, উদ্বেগ এবং হতাশা। কোনো ব্যক্তির মধ্যে এ ধরনের উপসর্গ দেখা দিলে তার জন্য প্রাত্যহিক কাজকর্ম সম্পাদন করা কষ্টসাধ্য এবং তার স্বাস্থ্যসেবা প্রয়োজন।

 

বিশ^ স্বাস্থ্য সংস্থার তথ্য অনুযায়ী, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত প্রতি চারজনে একজনের মধ্যে কমপক্ষে এক মাস লং কোভিডের উপসর্গ থাকে। অন্যদিকে প্রতি ১০ জনের মধ্যে একজনের ক্ষেত্রে এটা ১২ সপ্তাহের বেশি স্থায়ী হয়।

 

লং কোভিডের ঝুঁকি নিয়ে আরও গবেষণার প্রয়োজন বলে জানিয়েছে অন্টারিও সায়েন্স অ্যাডভাইজরি টেবিল। তবে ভ্যাকসিনেশন কোভিড-পরবর্তী সমস্যা কমিয়ে আনতে পারে বলে মত দেন রাজাক।

 

এখন পর্যন্ত অন্টারিওতে ১২ বছরের বেশি বয়সী ৮৪ দশমিক ৫ শতাংশ নাগরিক কমপক্ষে এক ডোজ ভ্যাকসিন নিয়েছেন। উভয় ডোজ ভ্যাকসিন নিয়েছেন ৭৮ দশমিক ২ শতাংশ। খবর: দ্য কানাডিয়ান প্রেস।

 

 

Comments