Tue 12th Dec 2017, 8:47 am

ফাঁসের কথা আগের রাতেই জেনেছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক

ফাঁসের কথা আগের রাতেই জেনেছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক

ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁসের ঘটনায় করা সিআইডির মামলার এজাহারে এই তথ্য পাওয়া গেছে।

পরীক্ষার আগে পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁসের অভিযোগ উঠলেও বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ তা অস্বীকার করে আসছে। ইতিমধ্যে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার ফলও ঘোষণা করেছে।

পরীক্ষার আগের দিন বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদুল্লাহ হল থেকে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সহসম্পাদক মহিউদ্দীন রানা এবং অমর একুশে হলের নাট্য ও বিতর্কবিষয়ক সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মামুনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। তাঁদের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী পরদিন পরীক্ষার হল থেকে এক পরীক্ষার্থীকে গ্রেপ্তার করা হয়।

শুক্রবার রাতেই সিআইডির পুলিশ পরিদর্শক (সংঘবদ্ধ অপরাধ) মোহাম্মদ আশরাফুজ্জামান শাহবাগ থানায় মামলা করেন। মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, ‘বৃহস্পতিবার রাত আনুমানিক আড়াইটার দিকে অমর একুশে হলে আসামি আব্দুল্লাহ আল মামুনকে পাই এবং হলের হাউস টিউটর মাহিদুল হক প্রধানের সহযোগিতা ও উপস্থিতিতে মামুনকে সেখানে জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্নপত্র পরীক্ষার আগেই ফাঁস করে দেওয়ার ঘটনার সঙ্গে প্রত্যক্ষভাবে জড়িত বলে স্বীকার করেন। তাঁর কাছ থেকে জব্দকৃত মোবাইলের হোয়াটস অ্যাপে বিভিন্ন ব্যক্তির আইডিতে প্রশ্নপত্র প্রেরণের ছবি, প্রবেশপত্র ও রোল নম্বর পাওয়া যায়। তাঁরা একটি সংঘবদ্ধ চক্র হিসেবে এই কাজে জড়িত। তাঁর সঙ্গে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সমীর, মিজান, আজাদ, 

Comments