শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ২:৩৫ pm

দৈনিক সংক্রমণ ৯ হাজারে পৌঁছাতে পারে

দৈনিক সংক্রমণ ৯ হাজারে পৌঁছাতে পারে

অন্টারিওর সায়েন্স অ্যাডভাইজরি টেবিলের প্রস্তুতকৃত মডেলিংয়ে এমনই বলা হয়েছে

অন্টারিওকে কোভিড-১৯ মহামারির চতুর্থ ঢেউ মোকাবেলা করতে হচ্ছে এবং পরিস্থিতি খুব বেশি খারাপের দিকে গেলে দৈনিক সংক্রমণ ৯ হাজারে পৌঁছতে পারে। নতুন মডেলিংয়ে এমন পূর্বাভাসই দেওয়া হয়েছে।

অন্টারিওর সায়েন্স অ্যাডভাইজরি টেবিলের প্রস্তুতকৃত মডেলিংয়ে বলা হয়েছে, দেখা সাক্ষাৎ কমিয়ে না আনলে ফলে অন্টারিওতে আক্রান্তের সংখ্যা অস্বাভাবিক বেড়ে যেতে পারে। পরিস্থিতি খুব খারাপ হলে অর্থাৎ শিক্ষার্থীরা শ্রেণিকক্ষে ও কর্মীরা অফিসে ফিরলে ১ অক্টোবরের মধ্যে দৈনিক সংক্রমণ ৯ হাজারে পৌঁছাতে পারে এবং তা অব্যাহত থাকবে। তবে পরিস্থিতি অতোটা খারাপ না হলে দৈনিক সংক্রমণ কমতে থাকবে এবং অক্টোবরের মধ্যে তা ৫০০ তে নেমে আসবে। বর্তমান যে পরিস্থিতিতে তাতে কোনো পরিবর্তন না হলে অক্টোবর নাগাদ দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা ৪ হাজার হতে পারে। তৃতীয় ঢেউয়ের সময় সর্বোচ্চ সংক্রমণের চেয়ে যা বেশি। যদিও প্রাদেশিক মডেলিংয়ে সবচেয়ে খারাপ পরিস্থিতিতে আক্রান্তের যে প্রাক্কলন করা হয়েছে কখনোই তা ফলেনি।

মহামারির আগের ঢেউগুলোতে অন্টারিওর সায়েন্স অ্যাডভাইজরি টেবিল প্রতি দুই সপ্তাহ অন্তর নতুন প্রক্ষেপণ করতো। তবে জুনের পর থেকে নতুন কোনো মডেল প্রকাশ করেনি। নতুন ভ্যাকসিন সনদ ব্যবস্থা নিয়ে প্রিমিয়ার ডগ ফোর্ডের সংবাদ সম্মেলনের পর বুধবার বিকালে অনেকটা গোপনেই নতুন উপাত্তগুলো ওয়েবসাইটে আপলোড করা হয়। কিন্তু প্রক্ষেপণের ব্যাখ্যা দিতে আগের মতো এবার আর কোনো সংবাদ সম্মেলন করা হয়নি।

সায়েন্স টেবিলের ডিরেক্টর (কমিউনিকেশন্স) বলেন, সরকার দেখার পর জনগণ যে যত দ্রুত সম্ভব নতুন মডেলিংটি দেখার অপেক্ষায় ছিলেন আমরা সেটা জানতাম। কোনো সংবাদ সম্মেলন ছাড়াই মডেলিংটি প্রকাশের এটাই ছিল দ্রুত ও সহজ উপায়।

মডেলিংয়ে বলা হয়েছে, পরিস্থিতি খুব বেশি খারাপ হলে অক্টোবরের মধ্যেই নিবিড় পরিচর্যাকেন্দ্রে ভর্তি কোভিড-১৯ রোগীর সংখ্যা তৃতীয় ঢেউকে ছাড়িয়ে যাবে। তবে ভালো খবর হলো লোকজন যদি তাদের দেখা সাক্ষাৎ মহামারি-পূর্ব সময়ের চেয়ে ৭০ শতাংশ কমিয়ে আনে এবং ভ্যাকসিনেশনের হার বাড়ানো যায় তাহলে এ পরিস্থিতি এড়ানো সম্ভব। সেটা হলে নিবিড় পরিচর্যাকেন্দ্রে ভর্তি কোভিড-১৯ রোগীর সংখ্যা ২০০ এর মধ্যে থাকবে।

অন্টারিও আরেকটি লকডাউনের দিকে যাচ্ছে কিনা জানতে চাইলে সায়েন্স টেবিলের পরিচালক (সায়েন্টিফিক) পিটার জুনি বলেন, এটা এড়ানো সম্ভব। ভ্যাকসিন আমাদের অসম্ভব সহায়তা করছে। তবে বিধিনিষেধের ক্ষেত্রে এই মুহূর্তে আমরা যতটুকু মেনে চলছি তা আরেকটু ভালো করা দরকার।

Comments