শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ২:১৯ pm

ভ্যাকসিন না নেওয়ার মাশুল মাসিক ২০০ ডলার

ভ্যাকসিন না নেওয়ার মাশুল মাসিক ২০০ ডলার

ডেল্টা এয়ারলাইন্সের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এড বাস্তিয়ান

ডেল্টা এয়ারলাইন্সের যেসব কর্মী ভ্যাকসিনেশনের বাইরে থাকবেন তাদেরকে মাসিক ২০০ ডলার করে মাশুল গুণতে হবে। কোম্পানির স্বাস্থ্য পরিকল্পনার আওতায় এ সিদ্ধান্তের কথা জানানো হয়েছে। যুক্তি হিসেবে বলা হয়েছে, এটা জরুরি, কারণ কোনো কর্মী হাসপাতালে ভর্তি হলে কোম্পানির খরচ হয় গড়ে ৫০ হাজার ডলার।

ডেল্টা এয়ারলাইন্সের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এড বাস্তিয়ান বলেন, সাম্প্রতিক সময়ে কোম্পানির যেসব কর্মীকে কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হতে হয়েছে তাদের অধিকাংশই ভ্যাকসিন ডোজ পূর্ণ করেননি।

এয়ারলাইন্সটির পক্ষ থেকে বুধবার বলা হয়, ৩০ সেপ্টেম্বরের পর থেকে ভ্যাকসিন না নেওয়া কর্মীরা কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হলে তাদেরকে বেতন সুরক্ষা দেওয়া হবে না। সেই সঙ্গে ১২ সেপ্টেম্বর থেকে তাদেরকে প্রতি সপ্তাহে কোভিড পরীক্ষা করাতে হবে। যদিও এর খরচ ডেল্টা এয়ারলাইন্সই বহন করবে। এছাড়া কোম্পানির অভ্যন্তরীণ সব স্থানে তাদেরকে মাস্ক পরিধান করতে হবে। 

তবে এর চেয়ে কঠোর পদক্ষেপ নিচ্ছে ইউনাইটেড এয়ারলাইন্স। ২৭ সেপ্টেম্বরের পর ভ্যাকসিন না নেওয়া কর্মীদের ছাঁটাই করবে এয়ারলাইন্সটি। নভেম্বরের পর থেকে মাসিক ২০০ ডলারের সারচার্জের বিষয়টিও প্রায় একই রকম। বাস্তিয়ান এ প্রসঙ্গে বলেন, ভ্যাকসিন না নেওয়ার সিদ্ধান্ত আমাদের কোম্পানির জন্য যে আর্থিক ঝুঁকি সৃষ্টি করছে সেটা বন্ধ করতে সারচার্জ আরোপ জরুরি।

সারচর্জ কেবলমাত্র ভ্যাকসিনেশনের বাইরে থাকা কর্মীদের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হবে। কর্মীর স্বামী/স্ত্রী বা নির্ভরশীলরা ভ্যাকসিন না নিলেও তা এখানে বিবেচ্য বিষয় হবে না।

বাস্তিয়ান বলেন, ডেল্টা এয়ারলাইন্সের ৭৫ শতাংশ কর্মী এখন পর্যন্ত ভ্যাকসিনেটেড হয়েছেন। জুলাই মাসের মাঝামাঝি সময়ে এ হার ছিল ৭২ শতাংশ। আগ্রাসী ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের কারণে আমাদের আরও বেশি কর্মীকে ভ্যাকসিন নিতে হবে। আমার তো মনে হয়, এ হার শতভাগের কাছাকাছি নিয়ে যাওয়া সম্ভব।

শেভরন করপোরেশন, ড্রাগস্টোর চেইন সিভিএসের মতো আরও অনেক প্রতিষ্ঠানও কর্মীদের জন্য ভ্যাকসিন গ্রহণ বাধ্যতামূলক করার ঘোষণা দিয়েছে। 

 

Comments