শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ২:২২ pm

৮০৭ আফগানকে উদ্ধার করেছে কানাডা

৮০৭ আফগানকে উদ্ধার করেছে কানাডা

প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো

কানাডা ঠিক কতজন আফগানকে দেশ ছাড়তে সাহায্য করেছে প্রথমবারের মতো সে তথ্য প্রকাশ করলেন প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো। সোমবার তিনি বলেন, বিশেষ অভিবাসন কর্মসূচির আওতায় ৮০৭ আফগানকে উদ্ধার করা হয়েছে। সেই সঙ্গে উদ্ধার করা হয়েছে কানাডার সশস্ত্র বাহিনী ও দূতাবাসের আরও ৩৪ জনকে।

যদিও নিরাপত্তার কারণ দেখিয়ে সহায়তাকারী শরনার্থীর সংখ্যা প্রকাশে অস্বীকৃতি জানিয়ে আসছিল সরকার। ট্রুডো বলেন, তালেবানদের উচিত সহিংতা ও শত্রুতা বন্ধ করে যারা আফগানিস্তান ছাড়তে চান তাদেরকে নিরাপদে সে সুযোগ দেওয়া। যত বেশি সংখ্যক আফগানকে সহায়তা করা যায় তা নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্যসহ অন্য মিত্রদের সঙ্গে কাজ করছে কানাডা। কাবুল বিমানবন্দরের নিরাপত্তায় মার্কিন সেনাবাহিনীর সঙ্গে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক কানাডিয়ান সৈন্যও সেখানে অবস্থান করছেন।

যে ৮০৭ আফগানকে উদ্ধার করা হয়েছে তাদের মধ্যে ৫০০ জনের বেশি এরইমধ্যে কানাডায় পৌঁছেছেন বলেও জানান জাস্টিন ট্রুডো। তিনি বলেন, পাশাপাশি আন্তর্জাতিক দুই কূটনীতিক ও ন্যাটোর পাঁচ কর্মকর্তাকেও উদ্ধার করেছে কানাডা। তবে আমার লক্ষ্য হচ্ছে যত দ্রুত সম্ভব ২০ হাজার আফগানকে কানাডায় পুনর্বাসন করা। গত সপ্তাহেই আমাদের সরকার এই লক্ষ্যের কথা ঘোষণা করেছে। তবে এদের মধ্যে তারাই অন্তর্ভুক্ত হবেন এরই মধ্যে যারা আফগানিস্তান ছেড়ে অন্য দেশে আশ্রয় নিয়েছেন। কানাডিয়ানদের পাশাপাশি বেশ কিছু কানাডিয়ান-আফগান নাগরিকও সেখানে রয়েছেন। তাদেরকে উদ্ধারে আমরা সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দিচ্ছি।

দুই দশক পর গত রোববার কোনো ধরনের প্রতিরোধ ছাড়াই আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে ঢুকে পড়েন তালেবান যোদ্ধারা। তার আগেই দেশ ছেড়ে পালিয়ে যান আফগান প্রেসিডেন্ট আশরাফর গণি।

ট্রুডো বলেন, ঘটনার আকস্মিকতা কানাডাসহ সারা বিশে^র মানুষকে স্তম্ভিত করেছে। কাবুল বিমানবন্দরের নিরাপত্তা নিশ্চিত হলে আরও বেশি আফগানকে উদ্ধারে উড়োজাহাজ পাঠাবে কানাডা।

আফগানিস্তান মিশনে কানাডার সৈন্যদের দোভাষী হিসেবে কর্মরত আফগান ও স্থানীয় কর্মীদের ফিরিয়ে আনারর যে প্রচারণা তার প্রতিষ্ঠাতা অ্যান্ড্রু রাস্ক। তিনি বলেন, আমাদের কাছে খবর আছে অন্তত ২ হাজারজন এখনও আফগানিস্তানে অবস্থান করছেন এবং দেশছাড়ার অপেক্ষায় রয়েছেন তারা। এটা চূড়ান্ত বিশৃঙ্খলা।

 

 

 

 

 

Comments