রবিবার, ১ আগস্ট ২০২১, ৯:১৮ am

সন্ত্রাসী সংগঠনের তালিকায় আরও দুই অতি ডানপন্থী গ্রুপ

সন্ত্রাসী সংগঠনের তালিকায় আরও দুই অতি ডানপন্থী গ্রুপ

আরিয়ান স্ট্রাইকফোর্সের প্রধান জশুয়া স্টিভার

অতি ডানপন্থী আরও দুটি গ্রুপকে সন্ত্রাসী সংগঠনের তালিকায় অন্তর্ভূক্ত করেছে ট্রুডো সরকার। দেশজুড়ে বাড়তে থাকা শে^তাঙ্গ জাতীয়বাদী সহিংসতাকে রুখতে এ পদক্ষেপ নিয়েছে সরকার।

জননিরাপত্তা মন্ত্রী বিল ব্লেয়ার শুক্রবার বলেন, থ্রি পার্সেন্টিয়ার্স ও আরিয়ান স্ট্রাইকফোর্সকে নতুন করে পর গত ফেব্রুয়ারিতে সন্ত্রাসী সংগঠনের তালিকায় অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছে। গত ৬ জুন ওয়াশিংটনের ক্যাপিটল হিলে হামলার পর প্রাউড বয়েজকে গত ফেব্রুয়ারিতে সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে চিহ্নিত করা হয়। নতুন সংগঠন দুটিও এখন সেই তালিকায় স্থান পেল। 

শীর্ষ গোয়েন্দা কর্মকর্তাদের মতে, আজীবন নিও-নাৎসি ৬৯ বছর বয়সী হোয়াইট সুপ্রিমেসিস্ট জেমস ম্যাসনের লেখালেখি বিভিন্ন সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর আদর্শগত ভিত্তি তৈরি করে দিয়েছে। তাকেও নিষেধাজ্ঞার আওতায় আনা হয়েছে।

মিলিশিয়া গ্রুপ থ্রি পার্সেন্টিয়ার্সের সদস্যরা মিশিগানের গভর্নরকে অপহরণ পরিকল্পনার সঙ্গে জড়িত ছিলেন বলে অভিযোগ আছে। কর্মকর্তারা বলছেন, সংগঠনটির আলবার্টা চ্যাপ্টার ব্রিটিশ কলাম্বিয়া চ্যাপ্টারের সঙ্গে আগ্নেয়াস্ত্র বহন করে ও তাদের আধা সামরিক প্রশিক্ষণ রয়েছে। 

বিল ব্লেয়ার বলেন, কানাডায় তারা সক্রিয় রয়েছে। কানাডায় তাদের কর্মকা- আমরা পর্যবেক্ষণ করছি। 

আরিয়ান স্ট্রাইকফোর্সের কানাডার পাশাপাশি যুক্তরাষ্ট্র, পশ্চিম ইউরোপ, দক্ষিণ আমেরিকা ও দক্ষিণ আফ্রিকায় কার্যক্রম রয়েছে। কঙ্গো প্রজাতন্ত্রভিত্তিক ইসলামিক স্টেট অব ইরাক অ্যান্ড দ্য লেভান্তেকেও সন্ত্রাসী সংগঠনের তালিকায় অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছে। এর আগে গত ফেব্রুয়ারিতে আরও ১৩টি সংগঠনকে এই তালিকায় অন্তর্ভূক্ত করে ফেডারেল সরকার।

থ্রি পার্সেন্টিয়ার্সের বিরুদ্ধে ইউএস ফেডারেল বিল্ডিং ও মুসলিম কমিউনিটিকে উদ্দেশ্য করে হামলার পরিকল্পনার সঙ্গে সম্পৃক্ত থাকার অভিযোগ রয়েছে। ২০১৫ সালে ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার আন্দোলনে মিনিয়াপোলিসে বিক্ষোভকারীদের ওপর হামলার ঘটনায় সংগঠনটির একজন সদস্য দোষী সাব্যস্ত হন। 

আরিয়ান স্ট্রাইকফোর্স যুক্তরাজ্যভিত্তিক নিও-নাৎসি গ্রুপ এবং ২০১৬ সালে পেনসিলভানিয়ায় হোয়াইট সুপ্রিমেসিবিরোধী এক সমাবেশে বোমা হামলার পরিকল্পনা করে তারা। রাসায়নিক অস্ত্র উৎপাদনের ঘটনায় যুক্তরাজ্য ও যুক্তরাষ্ট্রে দোষী সাব্যস্তও হয়েছে সংগঠনটি। 

বিভিন্ন গ্রুপকে সন্ত্রাসী তালিকায় অন্তর্ভূক্তিকরণ সম্পর্কিত লিবারেল সরকারের সাম্প্রতিক এ উদ্যোগের প্রতি সমর্থন জানিয়েছেন কনজার্ভেটিভ পার্টির পাবলিক সেফটি ক্রিটিক শ্যানন স্টাবস। তবে ইরানের সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা আয়াতুল্লাহ আলি খামেনির ঘনিষ্ঠ রেভল্যুশনারী গার্ডকেও এই সন্ত্রাসী তালিকায় অন্তর্ভূক্ত করার দাবি জানিয়েছেন তিনি। 

Comments