শনিবার, ১৬ জানুয়ারী ২০২১, ২:৩৭ am

নির্ধারিত সময়েই প্রতিবেদন দিতে হবে কোভিড-১৯ কমিশনকে

নির্ধারিত সময়েই প্রতিবেদন দিতে হবে কোভিড-১৯ কমিশনকে

প্রতিবেদন জমা দিতে লং-টার্ম কেয়ার কোভিড-১৯ কমিশনের অনুরোধ প্রত্যাখ্যান করেছে অন্টারিওর প্রোগ্রেসিভ কনজার্ভেটিভ সরকার। মহামারির দ্বিতীয় ঢেউয়ের মধ্যে সময়মতো পরামর্শ দেওয়ার প্রয়োজনে কমিশনের অনুরোধ রাখেনি সরকার।

অ্যাসোসিয়েট চিফ জাস্টিস ফ্রাংক মারোক্কোর নেতৃত্বে কমিশনাররা গত ৯ ডিসেম্বর লং-টার্ম কেয়ার বিষয়ক মন্ত্রী মেরিলি ফুলারটন বরাবর চিঠি লেখেন। প্রতিবেদন চূড়ান্ত করতে ও অসংখ্য সাক্ষাৎকারের পান্ডুলিপি পর্যালোচনার জন্য আরও সময় চাওয়া হয় চিঠিতে।

চিঠিতে বলা হয়, প্রিমিয়ারের প্রতিশ্রুতি সত্ত্বেও মহামারির দ্বিতীয় ঢেউয়ে নার্সিং হোমগুলোতে কীভাবে ভাইরাস তান্ডব চালালো সঠিকভাবে সেটি তদন্ত করতে ২০২১ সাল পর্যন্ত সময় প্রয়োজন। কমিউনিটির মধ্যে সংক্রমণ বাড়তে থাকায় আমরা নতুন নতুন তথ্য সংগ্রহ অব্যাহত রেখেছি। এগুলো চূড়ান্ত প্রতিবেদনে আমাদের সুপারিশ তৈরিতে কাজে লাগবে।

কমিশনের সময় বাড়ানোর এ আবেদন ২৩ ডিসেম্বর বাতিল করে দেন লং-টার্ম কেয়ার বিষয়ক মন্ত্রী মেরিলি ফুলারটন। কমিশনের কাছ থেকে জরুরিভিত্তিতে সুপারিশ প্রয়োজন জানিয়ে তিনি বলেন, ৩০ এপ্রিলের মধ্যেই আমরা কমিশনের কাছ থেকে চূড়ান্ত প্রতিবেদন ও সুপারিশ চাইছি।

অন্টারিওর ৬০ হাজারের বেশি স্বাস্থ্যকর্মীর প্রতিনিধিত্বকারী সংগঠন সার্ভিসেস এমপ্লয়িজ ইন্টারন্যাশনাল ইউনিয়ন হেলথকেয়ার। কমিশনের আবেদন বাতিল তাদেরকে ক্ষুব্ধ করলেও বিস্মিত করেনি। সংগঠনটির প্রেসিডেন্ট শার্লিন স্টুয়ার্ট এক বিবৃতিতে বলেছেন, এ কারণেই আমাদের সংগঠন কমিশনের বদলে তদন্ত চেয়েছিল। সেটা হলে অসংখ্য মৃত্যুর জন্য দায়ী ব্যর্থ সিদ্ধান্তগুলো সম্পর্কে মানুষ জানতে পারত।

ফোর্ড সরকার গত মে মাসে পাবলিক ইনকুয়ারি অ্যাক্টের আওতায় তদন্তের একাধিক দাবি প্রত্যাখ্যান করে ব্যবস্থাটি পর্যালোচনা করে দেখার পথ বেছে নেয়। প্রিমিয়ার ডগ ফোর্ড সে সময় বলেন, সুপারিশ দেওয়ার ক্ষেত্রে তদন্ত বেশি সময় নেবে।

Comments