বুধবার, ২০ জানুয়ারী ২০২১, ১২:৫৭ pm

করোনা সংক্রমণের তথ্য প্রদান বাধ্যতামূলক

করোনা সংক্রমণের তথ্য প্রদান বাধ্যতামূলক

টরন্টো সিটির প্রতিষ্ঠানগুলোর জন্য কর্মক্ষেত্রে সংক্রমণের তথ্য জানানো বাধ্যতামূলক হচ্ছে। টরন্টো জনস্বাস্থ্য বিভাগের কাছে এ তথ্য প্রদান করতে হবে, এ সপ্তাহেই যা কার্যকর হওয়ার কথা রয়েছে।

বর্তমানে ১৪ দিনের বিরতিতে কোনো কর্মক্ষেত্রে দুই বা তার বেশি কর্মী কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হলে টরন্টো জনস্বাস্থ্য বিভাগকে তা অবহিত করতে হয়। এছাড়া কর্মক্ষেত্রে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার পাশাপাশি হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও হাত ধোয়ার ব্যবস্থা রাখতে হয় সব প্রতিষ্ঠানকে। সেই সঙ্গে সিডিউল মেনে কর্মক্ষেত্রে পরিচ্ছন্ন করা, হিটিং ও ভেন্টিলেশন সিস্টেম সময় সময় পরীক্ষা করা এবং প্রতিষ্ঠানের গাড়িতে এক সঙ্গে একজনের বেশি কর্মীকে পরিবহন না করার বিষয়টিও নিশ্চিত করার বিধান রয়েছে।

কোনো কর্মীকে যদি কোয়ারেন্টিনে যেতে হয় তাহলে যে তিনি অর্থ সহায়তা প্রাপ্য হবেন, সে বিষয়ে তাকে সচেতন করাও প্রতিষ্ঠানের দায়িত্ব। 

সিটি কর্তৃপক্ষ মোট ১১টি ক্যাটেগরিতে কর্মক্ষেত্রে সংক্রমণের তথ্য সাপ্তাহিক ভিত্তিতে প্রকাশ করবে। ক্যাটেগরিগুলোর মধ্যে আছে বার, রেস্তোরাঁ, বিনোদন কেন্দ্র, অনুষ্ঠান কেন্দ্র ও উপাসনালয় এবং খুচরা বিক্রয় কেন্দ্র, ফার্ম, অফিস ও খাদ্য প্রক্রিয়াকরণ প্ল্যান্ট। ৭ জানুয়ারি থেকে প্রতি সপ্তাহে বৃহস্পতিবার এ সংক্রান্ত প্রতিবেদন প্রকাশ করা হবে।

টরন্টোর শীর্ষ চিকিৎসক ডা. এইলিন দ্য ভিলা বলেন, টরন্টো স্বাস্থ্য বিভাগ এর আগে জনস্বাস্থ্যের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলো চিহ্নিত করে এসেছে। নতুন পদ্ধতি প্রয়োগের ফলে সংক্রমণের আরও বিস্তৃত চিত্র পাওয়া যাবে। 

স্বাস্থ্য পর্যদের চেয়ারম্যান জো ক্রেসি বলেন, স্বচ্ছতা ও কর্মক্ষেত্রে নিরাপত্তা বাড়ানোর লক্ষ্যে নতুন এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। অনিরাপদ কর্মক্ষেত্র চিহ্নিত করার মধ্য দিয়ে আমরা প্রতিষ্ঠান ও সরকারকে আরও বেশি জবাবদিহিতার আওতায় আনতে পারব। আমাদের উদ্দেশ্য কেবল জানানো নয়, একই সঙ্গে কর্মীদের সুরক্ষার উপায়ও বাতলে দেওয়া। 

টরন্টোতে সোমবার নতুন করে আরও ৯৭৪ জন কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়েছেন। এ নিয়ে ৩০ ডিসেম্বর থেকে এ পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ৩ হাজার ৬১ জনে। আক্রান্তদের মধ্যে ৩৬৬ জন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। এর মধ্যে ৯৮ জন আছেন নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ)। এছাড়া রোববার থেকে আরও ৯ জন কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। এ নিয়ে ৩০ ডিসেম্বর থেকে মৃতের সংখ্যা দাঁড়ালো ৩৮ জনে। 

Comments