বুধবার, ২০ জানুয়ারী ২০২১, ১২:৩৪ pm

লাইসেন্স ফি কমানোর দাবি টরন্টোর ট্যাক্সি শিল্পের

লাইসেন্স ফি কমানোর দাবি টরন্টোর ট্যাক্সি শিল্পের

টরন্টোর ট্যাক্সি শিল্প বিজনেস লাইসেন্স ফি কমানোর দাবি জানিয়েছে। তা না হলে কোভিড-১৯ মহামারির কারণে ব্যবসায়িকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত শিল্পটিকে বাঁচানো যাবে না বলে মনে করছে তারা।

টরন্টো সিটি কাউন্সিলের আসন্ন বৈঠকে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হওয়ার কথা রয়েছে। ধুঁকতে থাকা শিল্পটির সহায়তায় বিভিন্ন প্রস্তাব সম্বলিত একটি প্রতিবেদনও বৈঠকে উত্থাপন করা হতে পারে। ওই প্রতিবেদনেই ভাড়ায় চালিত ট্যাক্সির লাইসেন্স ফি ১২ মাসের জন্য মওকুফের প্রস্তাব করা হয়েছে।

বিজনেস লাইসেন্স ফি বাবদ পরিশোধ করতে হয় বছরে ১ হাজার ১০০ ডলার। ব্যবসা না হওয়ার পরও লাইসেন্স ফি বাবদ এই পরিমান অর্থ পরিশোধ করলে পথে বসতে হবে বলে জানিয়েছেন ট্যাক্সি চালকরা। কো-অপ ক্যাবসের একটি ট্যাক্সির মালিক ও চালক টমাস স্প্যানিদিস ফি মওকুফের বিষয়ে বলেন, এটা আমাদের জন্য বিরাট সাহায্য হবে। কফিনে শেষ পেরেকটি অন্তত পড়বে না।

মহামারির কারণে ট্যাক্সির ব্যবহার কী হারে কমেছে, সে-সংক্রান্ত সুনির্দিষ্ট তথ্য নেই। তবে শিল্পটি যে ভয়াবহ আর্থিক সংকটের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে সেটা অস্বীকার করার উপায় নেই। 

বেক ট্যাক্সির দেওয়া তথ্যমতে, মহামারি শুরু হওয়ার আগে তারা ১ হাজার ৮০০ এর মতো ট্যাক্সি পরিচালনা করত। মহামারির প্রথম ঢেউ এবং মার্চের লকডাউনের সময় সংখ্যাটি ৩০০তে নেমে আসে। এরপর পরিস্থিতি কিছুটা ঘুরে দাঁড়ায় এবং ১ হাজার ২০০ এর মতো ট্যাক্সি রাস্তায় নামানো সম্ভব হয় বলে জানান প্রতিষ্ঠানটির অপারেশন ম্যানেজার ক্রিস্টিন হুবার্ড। তিনি বলেন, বেসরকারি অনেক ট্যাক্সি মালিক আছেন। তাদের মধ্যে অনেক ছোট ব্যবসায়ীও আছে, যারা শহরটিকে সেবা দিয়ে যাচ্ছে। তাদের জন্য সহায়তা খুব দরকার।

স্প্যানিদিসের মতো চালকরা বলছেন, ব্যবসায় ব্যাপক পতনের কারণে এ খাতে তাদের টিকে থাকাটাই কঠিন হয়ে পড়েছে। তিনি বলেন, ব্লকের পর ব্লক যাচ্ছি। কিন্তু কোনো যাত্রী নেই। আগামীতে ব্যবসায় টিকে থাকা যাবে কিনা সেটা নির্ভর করছে ২০২১ সালে শহরের অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধার কত দ্রুত হয় তার ওপর। যদিও বিকল্প আর কোনো কাজের সুযোগও আমার সামনে নেই। ৩৩ বছর ধরে ট্যাক্সি চালাচ্ছি। এখন কে আমাকে অন্য কাজ দেবে?

টরন্টোর জেনারেল গভর্নমেন্ট অ্যান্ড লাইসেন্সিং কমিটি ৩০ নভেম্বর অনুষ্ঠিত সর্বশেষ বৈঠকেও শিল্পটিকে সহায়তার বিষয়টি বিবেচনায় নিয়েছিল। তবে এ বিষয়ে সুপারিশ করার মতো কোনো সিদ্ধান্তে তারা পৌঁছতে পারেনি সে সময়।

 

Comments