Thu 22nd Oct 2020, 12:30 pm

করোনা মোকাবিলায় কানাডার নতুন পদক্ষেপ

করোনা মোকাবিলায় কানাডার নতুন পদক্ষেপ

বাংলামেইল ডটকম ডেস্ক

কানাডায় নতুন করে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় ইতোমধ্যে দেশটির বিভিন্ন প্রদেশে ফের কড়াকড়ি আরোপ করা হয়েছে। দেশটির বৃহত্তম প্রদেশ অন্টারিওতে ১০ জনের বেশি সমাবেশ করা নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এই নিয়মের অধিনে প্রদেশে কোথাও ঘরে ১০ এবং বাইরে ২৫ জনের বেশি সমাগম করা যাবে না। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে শনিবার অন্টারিও প্রদেশের প্রিমিয়ার ডাগফোর্ড এই ঘোষণা দিয়েছেন। এর আগে টরন্টো, অটোয়া এবং পিল রিজিওনের জন্য জনসমাগম সংকোচিত করা হয়েছিল। এদিকে, প্রাদেশিক সরকার কোভিড -১৯-এর দ্রুত সংক্রমণ রোধ করার অংশ হিসেবে মন্ট্রিয়ল এবং ক্যুইবেক সিটির বাসিন্দাদের সামাজিক কাজকর্ম কমিয়ে আনার আহ্বান জানিয়েছেন। পাশাপাশি, শহরবাসীকে নতুনভাবে বিধিনিষেধের মুখোমুখি হওয়ার বিষয়েও সর্তক করেছে প্রদেশ কর্তৃপক্ষ। ক্যুইবেকে শনিবার ও রোববার আক্রান্ত হয়েছে যথাক্রমে ৪২৭ ও ৪৬২ জন।

করোনার কারণে প্রাদেশিক সরকারগুলো বাসিন্দাদের স্বাস্থ্যসেবা বাড়িয়েছে। কিন্তু এক্ষেত্রে সরকারের সহায়তা পর্যাপ্ত নয় বলে মনে করছেন কানাডার অন্টারিও, ম্যানিটোবা, অ্যালবার্টা এবং ক্যুইবেকের ৪ প্রদেশের সরকার প্রধানরা। তারা করোনা সংকটে স্বাস্থ্যখাতে ঊর্ধ্বমুখী খরচ সামাল দিতে ফেডারেল সরকারের কাছে আরও ২৮ বিলিয়ন ডলার জরুরি সহায়তা দাবি করেছে।

এদিকে, অন্টারিওতে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডার সীমান্ত বন্ধ রাখার মেয়াদ আরও একমাস বাড়ানো হয়েছে। কানাডার নাগরিকদের নিরাপদ রাখতে এবং তাদের জনস্বাস্থ্যের কথা চিন্তা করেই কানাডা সরকার এ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন উল্লেখ করেছেন কানাডার জননিরাপত্তা মন্ত্রী বিল ব্লেয়ার।

করোনাভাইরাস মহামারি চলাকালীন এ পরিস্থিতিতে ২১ অক্টোবর পর্যন্ত এ সীমান্তে অপ্রয়োজনীয় ভ্রমণ বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কানাডা। ভ্রমণের এ নিষেধাজ্ঞাটি গত মার্চ মাসে প্রথম চালু হয়েছিল এবং এর পর থেকে প্রতি মাসে বাড়ানো হয়েছে।

 

Comments